টমেটোর হলুদ পাতা কোঁকড়ানো ভাইরাস রোগ

  • লক্ষণ

  • ট্রিগার

  • জৈবিক নিয়ন্ত্রণ

  • রাসায়নিক নিয়ন্ত্রণ

  • প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা

টমেটোর হলুদ পাতা কোঁকড়ানো ভাইরাস রোগ

TYLCV

ভাইরাস


সংক্ষেপে

  • পত্রফলকের উপর পুরু ও কুঞ্চিত দাগ ও শিরার অভ্যন্তরে ফ্যাকাসে সবুজ রং দেখা যায়.
  • পাতার ক্লোরোফিল শূন্য প্রান্তভাগ উপরের দিকে এবং ভেতরের দিকে গুটিয়ে যায়.
  • ফলের সংখ্যা কমে যায়, কিন্তু ফলের ত্বকে কোন উল্লেখযোগ্য উপসর্গ দেখা যায় না।.

আবাস:

টমেটো

লক্ষণ

টমেটোর হলুদ পাতা কোঁকড়ানো ভাইরাস (TYLCV) রোগ বীজতলায় আক্রমন হলে, কচি পাতা ও ডগা খর্বাকৃতির হয়; ফলে গাছ ঝোপের ন্যায় আকৃতি ধারন করে। বড় গাছে সংক্রমণ হলে অতিরিক্ত শাখা-প্রশাখা, পুরু এবং কুঞ্চিত পাতা ও শিরা-উপশিরার অভ্যন্তরে হলদেভাব দেখা যায়। রোগের পরবর্তী ধাপে, পাতা চর্মসদৃশ দেখায় এবং ক্লোরোফিল শূন্য পাতার কিনারা উপরের দিকে এবং ভেতরের দিকে গুটিয়ে যায়। ফুল ফোটার আগে সংক্রমণ হলে, ফলের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে কমে যায় যদিও ফলের ত্বকে কোন বিশেষ লক্ষণ দেখা যায় না।

ট্রিগার

টমেটোর হলুদ পাতা কোঁকড়ানো ভাইরাস (TYLCV) রোগ বীজ-বাহিত কোন রোগ নয় এবং হাতেনাতে সঞ্চারিত হয় না। এ রোগ বেমিসিয়া টাবাচি (Bemisia tabaci) প্রজাতির সাদামাছির মাধামে বিস্তার লাভ করে। সাদামাছি অধিকাংশ গাছের পাতার নিচে বসে খায় এবং কচি নরম গাছকেই বেশী আক্রমণের শিকার করে। টমেটো গাছে সংক্রমনের ধাপ প্রায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সংঘটিত হতে পারে; শুষ্ক আবহাওয়া ও উচ্চ তাপমাত্রা এ রোগ বিস্তারে সহায়ক।

জৈবিক নিয়ন্ত্রণ

আমরা দুঃখিত যে, টমেটোর হলুদ পাতা কোঁকড়ানো ভাইরাস (TYLCV) রোগের বিরুদ্ধে জৈবিক নিয়ন্ত্রণের কোন বিকল্প ব্যবস্থা আছে কিনা, তা এখনো আমাদের জানা নেই।

রাসায়নিক নিয়ন্ত্রণ

সম্ভবমত সমন্বিত বালাই ব্যবস্থাপনার আওতায় জৈবিক নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে প্রতিরোধের ব্যবস্থা নিন। অর্গানোফসফেটস্ (organophosphates), কার্বামেটস্ (carbamates) এবং পাইরেথ্রয়েডস্ (pyrethroids) এবং ইমিডাক্লোপ্রিডের (imidacloprid) জাতীয় কীটনাশক চারাগাছে বা মাটি নিষিক্ত করার জন্য ব্যবহার করে সাদামাছির বংশবৃদ্ধি কমানো যায়। কিন্তু এগুলোর মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার সাদামাছির প্রতিরোধক্ষমতা বৃদ্ধি করতে পারে।

প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা

  • রোগ প্রতিরোধী বা সহনশীল জাত ব্যবহার করুন.
  • সাদামাছিতে আক্রান্ত হয় না এমন প্রজাতির ফসল দিয়ে পর্যায়ক্রমিকভাবে আবাদ করুন.
  • জাল দিয়ে বীজতলা আচ্ছাদিত করুন এবং সাদামাছির উপদ্রব এড়াতে ফসল আগাম রোপণ করুন.
  • প্লাস্টিকের হলুদ আঠালো ফাঁদ ব্যবহার করুন.
  • সাদামাছির জীবনচক্র ব্যাহত করতে বীজতলায় প্লাস্টিক মাল্চ ব্যবহার করুন.
  • পরাশ্রয় প্রদান করে না এমন শস্য, যেমন স্কোয়াশ এবং শশা, ফাঁদ হিসাবে সারির মাঝে মাঝে রোপণ করুন.
  • ক্ষেতের তদারকি করুন, সংক্রমিত উদ্ভিদ হাত দিয়ে তুলে ফেলুন এবং মাটিতে পুঁতে দিন.
  • টমেটো ক্ষেতের কাছাকাছি কোন বিকল্প পরাশ্রয় প্রদানকারী শস্য রোপণ করা থেকে বিরত থাকুন.
  • মাঠের ভেতরে এবং আশেপাশে থাকা আগাছা খুঁজে বের করে নির্মূল করুন.
  • ফসল ঘরে তোলার পর উদ্ভিদের সকল অবশিষ্টাংশ গভীরভাবে কর্ষণ করে মাটির মধ্যে ঢুকিয়ে দিন বা সেগুলো পুড়িয়ে ফেলুন।.