টমেটোর স্পেক রোগ

  • লক্ষণ

  • ট্রিগার

  • জৈবিক নিয়ন্ত্রণ

  • রাসায়নিক নিয়ন্ত্রণ

  • প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা

টমেটোর স্পেক রোগ

Pseudomonas syringae pv. tomato

ব্যাকটেরিয়া


সংক্ষেপে

  • পাতা, কাণ্ড, এবং পুষ্পবৃন্তের উপর গাঢ় বাদামী থেকে কালো দাগের সঙ্গে হলুদ রঙের বৃত্ত দেখা দেয়.
  • দাগসমূহ পরস্পরের উপর সমাপতিত হয়ে অনিয়মিত দাগ গঠন করে.
  • ফলের উপর ছোট, অগভীর, উত্থিত কালো দাগ দেখা যায়।.

আবাস:

টমেটো

লক্ষণ

উদ্ভিদের বৃদ্ধির সমস্ত পর্যায়ে ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ করতে পারে। লক্ষণসমূহ প্রধানত পাতা এবং ফলের উপর দেখা যায় এবং সরু অস্বচ্ছকার হলুদ বৃত্তের সঙ্গে ছোট, গোলাকার, কালো দাগ দিয়ে চিহ্নিত করা যায়। দাগগুলি সাধারণত বিক্ষিপ্ত ও ছোট হয়, কিন্তু গুরুতর ক্ষেত্রে তারা সমবেত বা সমপতিত হতে পারে, ফলে আরো বড় ও অনিয়মিত দাগ দেখা যায়। এছাড়াও তারা পাতার আগার দিকে একত্রিত হয়, যার ফলে যেই স্থানটি কুঁকড়িয়ে যেতে পারে। ফলের উপরে ক্ষুদ্র, সামান্য উত্থিত, কালো দাগ বৃদ্ধি পায় কিন্তু শুধু উপরের দিকের কোষকলাকেই প্রভাবিত করে। যখন ছোট ফলগুলো সংক্রমিত হয়, দাগগুলো দাবানো ধরনের দেখাতে পারে।

ট্রিগার

মাটি, সংক্রামিত উদ্ভিদের অবশিষ্টাংশে ও বীজে বাস করা সিউডোমোনাস সিরিঞ্জা পিভি. টমেটো (Pseudomonas syringae pv. tomato) নামে পরিচিত ব্যাকটেরিয়া এই উপসর্গগুলি সৃষ্টি করে। চাষের কাজে ব্যবহৃত সংক্রমিত বীজই হল রোগ সংক্রমনের প্রথম উৎস, কারণ এখানেই ব্যাকটেরিয়া বেড়ে ওঠে এবং বর্দ্ধনশীল উদ্ভিদে বাসা বাঁধে। এই ব্যাকটেরিয়া টমেটো গাছের পাতা এবং ফল উভয়কেই আক্রমণ করতে পারে। সংক্রমণের দ্বিতীয় উৎস হচ্ছে পাতা ও ফলে বৃদ্ধি পাওয়া ব্যাকটেরিয়া যা পরে বৃষ্টির ছাট এবং ঠান্ডা স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ায় গাছ থেকে গাছে ছড়িয়ে পড়ে। রোগের চরম প্রাদুর্ভাব অপেক্ষাকৃত বিরল এবং পাতায় উচ্চমাত্রার আর্দ্রভাব, ঠান্ডা আবহাওয়া এবং উদ্ভিদের আন্তঃপরিচর্যার মাধ্যমে ব্যাকটেরিয়া পরাশ্রয় প্রদানকারী উদ্ভিদে ছড়িয়ে পড়ে। তীব্র সংক্রমণে সংক্রমিত গাছের বৃদ্ধি বাধাপ্রাপ্ত হওয়ায় ফল পরিপক্ক হতে দেরি হতে পারে এবং ফলন হ্রাস পেতে পারে।

জৈবিক নিয়ন্ত্রণ

ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা কমানোর জন্য ২০% ব্লিচের দ্রবণে ৩০ মিনিট ধরে বীজ ভিজিয়ে রাখা হয়। যেহেতু এটা অঙ্কুরোদগমের হারকে প্রভাবিত করতে পারে, তাই ৫২° সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ২০ মিনিট ধরে বীজকে ভিজিয়ে রাখা যেতে পারে। বীজ সংগ্রহ করার সময়ে জীবাণুমুক্ত করার জন্য টমেটো মণ্ডের ভেতরে এক সপ্তাহের জন্য রেখে বীজকে গাঁজিয়ে তুলুন।

রাসায়নিক নিয়ন্ত্রণ

সম্ভবমত সমন্বিত বালাই ব্যবস্থাপনার আওতায় জৈবিক নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে প্রতিরোধের ব্যবস্থা নিন। আংশিকভাবে রোগ নিয়ন্ত্রণ করতে, কপার সমৃদ্ধ ব্যাকটেরিয়ানাশক রোগের প্রথম লক্ষণ সনাক্ত করার পরে প্রতিরক্ষামূলক ভাবে বা আরোগ্যমূলক ভাবে সরাসরি ব্যবহার করা যেতে পারে। যখন ঠাণ্ডা, বৃষ্টি এবং আর্দ্র অবস্থা দীর্ঘদিন স্থায়ী হয় তখন ৭-১৪ দিনের বিরতিতে একই পদ্ধতি প্রয়োগ করুন। যেহেতু কপারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে ওঠার ঘটনা হামেশাই ঘটে, ম্যানকোজেবের (mancozeb) সাথে ব্যাকটেরিয়ানাশকের মিশ্রণ ব্যবহার করলেও সুফল পাওয়া যায়।

প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা

  • শুধুমাত্র প্রত্যয়িত সুস্থ বীজই ব্যবহার করুন.
  • যদি আপনার এলাকায় সহজলভ্য হয় তবে রোপণের জন্য রোগ প্রতিরোধী জাত বাছুন.
  • ফসল উৎপাদন ক্ষেত্র থেকে বেশ দূরে চারাগাছ তৈরী করুন.
  • দুই বছর অন্তর ফসল-চক্র অনুসরণ করুন.
  • গাছপালা ভেজা অবস্থায় থাকাকালীন মাঠের কাজ এড়িয়ে চলুন.
  • প্রতিস্থাপনের সময় বা রোপণ করার সময় চারাগাছ জখম হওয়া এড়িয়ে চলুন.
  • উৎপাদন মরশুম শেষে, জমি থেকে আগাছা এবং টমেটো গাছের অবশিষ্টাংশ সরিয়ে নিন.
  • দুটি গাছের মধ্যে যথেষ্ট জায়গা ছেড়ে রাখুন এবং গাছ সোজা করে রাখতে খুঁটির ব্যবহার করুন.
  • স্প্রিঙ্কলার যন্ত্রের সাহায্যে এবং নিচ থেকে গাছে জলসেচ করবেন না।.